ঢাকায় একজন নারীর চুল কাটাতে কত টাকাই–বা খরচ হয়! সর্বোচ্চ হাজার থেকে দেড় হাজার টাকা। মার্কিন মুদ্রার হিসাবে যা ১৭ ডলারের মতো। তবে যদি প্যারিসে গিয়ে চুল কাটাতে চান, ব্যয় করতে হবে এর প্রায় সাত গুণ। কারণ, বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল শহর হলো প্যারিস।

লন্ডনভিত্তিক ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের (ইআইইউ) জরিপ অনুযায়ী, সিঙ্গাপুর ও হংকংয়ের সঙ্গে এখন বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল শহরের তালিকায় উঠে এসেছে প্যারিস। গত বছর এটি ব্যয়বহুল শহরের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল।

বিশ্বের ১৩৩টি শহরে জীবনযাত্রার ব্যয় নিয়ে জরিপ চালিয়ে প্রতিবছর এই প্রতিবেদন তৈরি করে ইআইইউ। ৩০ বছর ধরে এই প্রতিবেদন তৈরি করছে তারা। এবারই প্রথম সিঙ্গাপুর, হংকং ও প্যারিস একসঙ্গে এই তালিকার শীর্ষে উঠে এল। আজ মঙ্গলবার বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

শহরগুলোয় সাধারণ কিছু পণ্য ও সেবার দামের তুলনা করে এই তালিকা তৈরি করে ইআইইউ। এগুলোর মধ্যে আছে রুটির মতো খাবার ও পানীয়, পোশাক, বাড়িভাড়া, গৃহস্থালি পণ্য, প্রসাধনসামগ্রী, পরিবহন ব্যয়, স্কুল খরচ, ইউটিলিটি বিল ও বিনোদন ব্যয়। যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক শহরের জীবনযাপনের যে ব্যয় হয়, তার সঙ্গে বিশ্বের অন্য শহরগুলোর তুলনা করে ইআইইউ এ তালিকা প্রকাশ করে। নিউইয়র্ক শহরকে বেঞ্চমার্ক হিসেবে ধরা হয়।

প্রতিবেদনের লেখক রোক্সানা স্লাভশেভা বলেন, ২০০৩ সাল থেকে শীর্ষ ১০ ব্যয়বহুল শহরের তালিকায় সব সময় প্যারিসের নাম রয়েছে। এই শহর জীবনযাপনের জন্য অতিরিক্ত ব্যয়বহুল। উদাহরণস্বরূপ বলা যায়, এ শহরে চুল কাটাতে নারীদের গড়ে ব্যয় করতে হয় ১১৯ দশমিক শূন্য ৪ ডলার। যেখানে জুরিখে ৭৩ দশমিক ৯৭ ডলার ও জাপানের ওসাকা শহরে ৫৩ দশমিক ৪৬ ডলার ব্যয় করতে হয়।

ইআইইউয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বর্তমানে সবচেয়ে ব্যয়বহুল শহর হলো সিঙ্গাপুর, হংকং ও প্যারিস। এর পরেই আছে সুইজারল্যান্ডের শহর জুরিখ, জেনেভা। এ তালিকায় শীর্ষ ১০ শহরের মধ্যে আরও স্থান পেয়েছে জাপানের ওসাকা, দক্ষিণ কোরিয়ার সিউল, ডেনমার্কের কোপেনহেগেন, যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক, ইসরায়েলের তেলআবিব ও যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলস।

মুদ্রাস্ফীতি ও অস্থির মুদ্রাবাজারের ফলে এই বছরের তালিকায় ব্যাপক পরিবর্তন হয়েছে। আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, তুরস্ক ও ভেনেজুয়েলার মতো দেশগুলো এই তালিকার নিচে চলে এসেছে। চলতি বছর জীবযাত্রার হিসেবে ব্যয়বহুল শহরের তালিকায় ভেনেজুয়েলার রাজধানী কারাকাস অনেক নিচে নেমে গেছে। বর্তমানে ভেনেজুয়েলার মূল্যস্ফীতির হার ১০,০০,০০০ শতাংশ। পরিস্থিতি মোকাবিলায় গত বছর সরকার নতুন মুদ্রা চালু করেছে। ফলে বিশ্বের সবচেয়ে কম ব্যয়ের শহরের তালিকায় উঠে এসেছে কারাকাস। এরপরই আছে সিরিয়ার রাজধানী দামেস্ক, উজবেকিস্তানের তাসখন্দ, কাজাখস্তানের আলমাতি, ভারতের বেঙ্গালুরু, পাকিস্তানের করাচি, নাইজেরিয়ার লাগোস, আর্জেন্টিনার বুয়েনস এইরেস, ভারতের চেন্নাই ও নয়াদিল্লি। সূত্র: প্রথমআলো।